মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রাকৃতিক সম্পদ

রায়গঞ্জ উপজেলায় উল্লেখযোগ্য কোন প্রাকৃতিক সম্পদ নেই।

জনগোষ্ঠীর আয়ের প্রধান উৎস কৃষি ৬৯.২৭%, অকৃষি শ্রমিক ২.৯৩%, শিল্প ৪.৪৬%, ব্যবসা ১১.২৫%, পরিবহণ ও যোগাযোগ ২.৫১%, চাকরি ৩.৯০%, নির্মাণ ০.৯০%, ধর্মীয় সেবা ০.১৭%, রেন্ট অ্যান্ড রেমিটেন্স ০.১৮% এবং অন্যান্য ৫.৩৩%।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান লাইব্রেরি ২, সাংস্কৃতিক সংগঠন ২, মহিলা সংগঠন ৩, খেলার মাঠ ৬।

কৃষিভূমির মালিকানা ভূমিমালিক ৫৫.৯৯%, ভূমিহীন ৪৪.০১%। শহরে ৩৫.৫৯% এবং গ্রামে ৫৬.৪৯% পরিবারের কৃষিজমি রয়েছে।

প্রধান কৃষি ফসল ধান, পাট, আলু, আখ, গম, ডাল, শাকসবজি।

প্রধান ফল-ফলাদি আম, কাঁঠাল, লিচু, কলা, পেঁপে, পেয়ারা, জাম।

মৎস্য, গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগির খামার মৎস্য ৩৮, গবাদিপশু ৮, হাঁস-মুরগি ২৮, হ্যাচারি ৫।

যোগাযোগ বিশেষত্ব পাকারাস্তা ১১৭.৫৫ কিমি, আধা-পাকারাস্তা ২.২৫ কিমি, কাঁচারাস্তা ৮১৯.৮০ কিমি; নৌপথ ২৫.৯২ নটিক্যাল মাইল। ব্রিজ ২৪, কালভার্ট ২৫৭।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহন পাল্কি, ডুলি, ঘোড়ার গাড়ি।

শিল্প ও কলকারখানা চালকল, আটাকল, বরফকল, করাতকল, ওয়েল্ডিং কারখানা।

কুটিরশিল্প তাঁতশিল্প, লৌহশিল্প, মৃৎশিল্প, সুচিশিল্প, বাঁশের কাজ, বেতের কাজ।

হাটবাজার ও মেলা হাটবাজার ৯, মেলা ৫। চান্দাইকোনা হাট, সলংগা হাট, ধামাইর হাট আমশড়া হাট, ব্রক্ষ্মগাছা হাট, নলকা হাট, রুদ্রপুর হাট, কৃষ্ণদিয়া হাট এবং নিমগাছি মেলা ও ধানগড়া মেলা উল্লখযোগ্য।

বিদ্যুৎ ব্যবহার এ উপজেলার সবক’টি ইউনিয়ন পল্লিবিদ্যুতায়ন কর্মসূচির আওতাধীন। তবে ১৬.৯৬% পরিবারের বিদ্যুৎ ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

পানীয়জলের উৎস নলকূপ ৯০.৭৭%, ট্যাপ ০.৩২%, পুকুর ০.৪২% এবং অন্যান্য ৮.৪৯%। এ উপজেলার ২৩.৩২% অগভীর নলকূপের পানিতে আর্সেনিকের উপস্থিতি প্রমাণিত হয়েছে।

স্যানিটেশন ব্যবস্থা এ উপজেলার ৩০.০০% (গ্রামে ২৯.৭৫% ও শহরে ৩৯.৮৭%) পরিবার স্বাস্থ্যকর এবং ৩৬.৪৩% (গ্রামে ৩৬.৪৭% ও শহরে ৩৪.৭৪%) পরিবার অস্বাস্থ্যকর ল্যাট্রিন ব্যবহার করে। ৩৩.৫৭% পরিবারের কোনো ল্যাট্রিন সুবিধা নেই।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১, স্বাস্থ্যকেন্দ্র ৯।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ ১৮৯৭, ১৯৪৩ ও ১৯৭৪ সালের দুর্ভিক্ষে এ উপজেলায় প্রাণহানি ঘটে। এছাড়া ১৮৮৫ ও ১৮৯৭ সালের ভূমিকম্পে এ উপজেলার ঘরবাড়ি ও অন্যান্য সম্পদের ব্যাপক ক্ষতি হয়।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter